1. hasanchy52@gmail.com : admin :
  2. amarnews16@gmail.com : Akram Hossain : Akram Hossain
মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ০২:০০ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ

স্কুলের অনুষ্ঠান থেকে তুলে নিয়ে দশম শ্রেণির ছাত্রীকে গণধর্ষণ

  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ২৩ অক্টোবর, ২০১৮
  • ৮৭৪ বার দেখা হয়েছে

 যশোর সংবাদদাতা ।। যশোরের মণিরামপুর উপজেলায় একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের বছর পূর্তির অনুষ্ঠানে এসে গণধর্ষণের শিকার হয়েছে দশম শ্রেণির এক ছাত্রী। রোববার রাতে উপজেলার দিগঙ্গা কুচলিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এই ঘটনা ঘটে।

ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত দুইজনকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয়রা। এরা হলো উপজেলার শ্রীপুর গ্রামের হরেন মণ্ডলের ছেলে প্রশান্ত মণ্ডল (২৫) ও কুচলিয়া গ্রামের শুভংকর সরকার ওরফে কালিপদের ছেলে কমলেশ সরকার(২৩)। এছাড়া ঘটনার সঙ্গে জড়িত নেবুগাতি গ্রামের প্রশান্ত মল্লিকের ছেলে সত্যজিৎ বিশ্বাস (১৮) ও কুচলিয়া গ্রামের কার্তিক মণ্ডলের ছেলে সুদীপ মণ্ডল (১৭) আত্মগোপনে রয়েছে। এ ঘটনায় গতকাল সোমবার রাতে মামলা হয়েছে। নির্যাতিত ছাত্রীকে উদ্ধার করে ডাক্তারি পরীক্ষা ও জবানবন্দি রেকর্ডের জন্য হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ। স্থানীয় সূত্র জানায়, উপজেলার দিগঙ্গা কুচলিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে তিন দিনব্যাপী অনুষ্ঠান চলছিল। রোববার ছিল অনুষ্ঠানের সমাপনী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠান চলাকালীন দশম শ্রেণির ওই ছাত্রী বন্ধুদের সঙ্গে গল্প করছিল। এসময় প্রশান্ত মণ্ডল, কমলেশ সরকার, সত্যজিৎ বিশ্বাস ও সুদীপ মণ্ডল ছাত্রীর বন্ধুদের মারপিট করে তাকে তুলে নিয়ে মাছের ঘেরপাড়ে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। স্থানীয় ইউপি সদস্য প্রণব বিশ্বাস বলেন, ওইদিন রাতে একটি মেয়েকে ধর্ষণ করা হচ্ছে মোবাইলে এমন একটি খবর পাই। সঙ্গে সঙ্গে অনুষ্ঠানস্থলে থাকা লোকজনকে বিষয়টি জানাই। পরে ঘটনাস্থলে গিয়ে দুইজনকে ধরে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেন তারা। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মণিরামপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহিদুল ইসলাম বলেন, নির্যাতিত ছাত্রীর স্বীকারোক্তি ও স্থানীয়দের ভাষ্যমতে ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত চারজনকে শনাক্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে দুইজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্যদের গ্রেপ্তারে পুলিশের অভিযান চলছে।

 

 

শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরও খবর
© All rights reserved © 2014 Amar News
Site Customized By Hasan Chowdhury