1. hasanchy52@gmail.com : admin :
  2. amarnews16@gmail.com : Akram Hossain : Akram Hossain
বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ০২:৫৯ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
মানিকগঞ্জে আন্দোলনরত সাধারন শিক্ষার্থীদের উপর হামলা বিএনপির সাবেক মহাসচিব খন্দকার দেলোয়ার হোসেনের ছেলে ডাবলুর মৃত্যুতে জেলা বিএনপির শোক প্রকাশ মানিকগঞ্জের গড়পাড়া ইমাম বাড়ির তাজিয়া মিছিল বের হওয়ার নানা প্রস্তুতি ও ইতিহাস প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে সেরা মেধাবী পুরুষ্কার গ্রহন করেন মানিকগঞ্জের জান্নাতুল মানিকগঞ্জের গড়পাড়ায় ব্রীজ নির্মানের দুই বছরের মধ্যেই ডেবে চরম ভোগান্তিতে হাজারোও মানুষ মানিকগঞ্জ গড়পাড়া ইমামবাড়ির তাজিয়া মিছিলের প্রস্ততি ও  ইতিহাস কোটা  আন্দোলনের সমর্থনে মানিকগঞ্জে মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ সিংগাইরে ঋণ গ্রহীতার কাছে ব্যাংক ম্যানেজারের ঘুষ দাবীর অভিযোগ মানিকগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় সাবেক ছাত্রলীগ নেতার মৃত্যু সিংগাইরে আ.লীগ অফিস ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাংচুরের ঘটনায় ৫ দিনেও গ্রেফতার নেই 

৪৩৮ রানের ম্যাচে ১৮ রানে হারলো কলকাতা

  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ৪ অক্টোবর, ২০২০
  • ৩৪৮ বার দেখা হয়েছে

দিল্লি ক্যাপিটালসের ছুড়ে দেওয়া ২২৯ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে কলকাতা নাইট রাইডার্স প্রায় ছুঁয়ে ফেলেছিল কাঙ্খিত জয়টি। কিন্তু ইয়ান মরগান ও রাহুল ত্রিপাথি আউট হওয়ার পর জয় বন্দর থেকে ছিটকে যায় কেকেআর। শেষ পর্যন্ত ২১০ রানে শেষ হয় তাদের ইনিংস। ৪৩৮ রানের ম্যাচে তারা হার মানে ১৮ রানে।

আইপিএলের এবারের আসরে এটা ছিল দিল্লির তৃতীয় জয়। আর কলকাতার দ্বিতীয় হার। ৪ ম্যাচ থেকে ৬ পয়েন্ট নিয়ে দিল্লি অবস্থান করছে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে। আর ৪ পয়েন্ট নিয়ে কলকাতা রয়েছে পঞ্চম স্থানে।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ঝড় তোলেন দিল্লির টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানরা। ৫.৫ ওভারে ৫৬ রান তোলার পর আউট হন শিখর ধাওয়ান। ১৬ বলে ২ চার ও ২ ছক্কায় ২৬ রান করে আউট হন তিনি। ধাওয়ান আউট হওয়ার পর পৃথ্বি’শ ও শ্রেয়াস আয়ার রুদ্রমূর্তি ধারন করেন। ১২.৪ ওভারেই তারা তুলে ফেলেন ১২৯ রান। এ সময় পৃথ্বি’শ  ৪ চার ও সমান সংখ্যক ছক্কায় ৬৬ রান করে আউট হন।

এরপর অধিনায়ক শ্রেয়াস আয়ার আইপিএলের ইতিহাসে দ্রুততম হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন। মাত্র ২৬ বলে ৪ চার ও ৩ ছক্কায় ৫০ করেন তিনি। তার সঙ্গে রিশাব পন্তও হাত খুলে মারতে থাকেন। পন্ত ১৭ বলে ৩৮ রান করে আউট হলেও আয়ারকে আউট করা যায়নি। তিনি ৭টি চার ও ৬ ছক্কায় ৮৮ রানে অপরাজিত থাকেন। তাতে ৪ উইকেট হারিয়ে ২২৮ রানে থামে তাদের ইনিংস।

কলকাতার আন্দ্রে রাসেল ২৯ রান দিয়ে ২টি উইকেট নেন।

২২৯ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ৮ রানেই প্রথম উইকেট হারায় কলকাতা। ফিরে যান সুনীল নারিন ৩ রান করে। দ্বিতীয় উইকেটে ৬৪ রান তোলেন শুভমান গিল ও নিতিশ রানা। ৭২ রানে গিল (২৮) ও ৯৪ রানে আন্দ্রে রাসেল (১৩) আউট হওয়ার পর দ্রুত আরো দুটি উইকেট হারায় কলকাতা। ১১৭ রানের মাথায় ৩৫ বলে ৪ চার ও ৪ ছক্কায় ৫৮ রান করে ফিরে যান নিতেশ রানা। একই রানে দিনেশ কার্তিকও ফেরেন ৮ রান করে। ১৩.৩ ওভারের সময় ১২২ রানের মাথায় প্যাট কামিন্স ৫ রান করে আউট হলে জয়টা অসম্ভব হয়ে দাঁড়ায় কলকাতার জন্য।

কিন্তু তখনো নাটক বাকি ছিল। ইয়ান মরগান ও রাহুল ত্রিপাথি ছক্কা বৃষ্টি বইয়ে এক সময় জয়টা নাগালে নিয়ে আসেন। কিন্তু শেষ হাসিটি হাসতে পারেনি তারা।

জয় থেকে ২৯ রান দূরে থাকতে ২০০ রানের মাথায় মরগান ফিরে যান। যাওয়ার আগে মাত্র ১৮ বলে ১ চার ও ৫ ছক্কায় ৪৪ রান করে যান। ২০৭ রানের মাথায় ত্রিপাথি আউট হলে জয় থেকে ছিটকে যায় কলকাতা। ত্রিপাথি ১৬ বলে ৩ চার ও সমান সংখ্যক ছক্কায় ৩৬ রান করেন। শেষ পর্যন্ত ৮ উইকেট হারিয়ে ২১০ রানে থামে কলকাতা নাইট রাইডার্স।

বল হাতে দিল্লির অ্যানরিচ নর্টজে ৩টি উইকেট নেন। ২টি উইকেট নেন হার্শাল প্যাটেল।

শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরও খবর
© All rights reserved © 2014 Amar News
Site Customized By Hasan Chowdhury