1. hasanchy52@gmail.com : admin :
  2. amarnews16@gmail.com : Akram Hossain : Akram Hossain
বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:৪০ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
এস.এস.সি পরীক্ষায় গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়েছেন ফয়সাল মাহমুদ এস.এস.সি পরীক্ষায় গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়েছেন সামিউল হাসান সিফাত এস. এস. সি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়েছে মানিকগঞ্জ পৌর আওয়ামীলীগ নেতা ছেলে আলামিন মানিকগঞ্জ যুবদলের যুগ্ন আহবায়ক মাসুদ পারভেজ আটক সাউথইস্ট ব্যাংক এজেন্ট ব্যাংকিং জয়মন্টপ শাখার প্রথম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে আলোচনা সভা রোহিঙ্গাদের জন্য সাড়ে ৭ মিলিয়ন ডলার দেবে নেদারল্যান্ডস এসএসসি পরীক্ষায় মানিকগঞ্জের শামস আলিয়া ইস্মি জিপিএ-৫ পেয়েছে মুন্নু ইন্টারন্যাশনাল স্কুল অ্যান্ড কলেজে পাসের হার শতভাগ, শিক্ষার্থীদের বাঁধভাঙা উল্লাস ১০ ডি‌সেম্বর স্থান ইস্যুতে অনড় বিএনপি ও সরকার আমরা যুদ্ধ ও সংঘাতের ক্ষতি বুঝি, প্লিজ যুদ্ধ থামান: প্রধানমন্ত্রী

ড্যাফোডিল এর বুকে এক টুকরো মানিকগঞ্জ

  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০২২
  • ২৩৩ বার দেখা হয়েছে

জহিরুল ইসলাম তুষারঃ

ড্যাফোডিল এর বুকে এক টুকরো মানিকগঞ্জ  আমরা যখন নিজ এলাকা ছেড়ে দূরে কোথাও যাই তখন নিজ এলাকা ও এলাকার মানুষের প্রতি আমাদের গভীর ভালোবাসার উপলব্ধিটি স্পষ্ট হয়।

সেই দূরদেশে যখন নিজ একালার কারো সাথে দেখা হয় মনের অজান্তেই যে ভালোলাগাটা কাজ করে তা সত্যিই অসাধারণ।
এমনটা এখানেও হয় আমার প্রানের ক্যাম্পাস ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি। যখন আমার নিজ জেলার কাওকে দেখতে পাই মনের মধ্যে সুন্দর একটা অনুভূতি ঝংকার দিয়ে ওঠে।

সেই সুন্দর অনুভূতিটিকে সর্বক্ষণ ধরে রাখার জন্য এবং ড্যাফোডিল বিদ্যাপীঠ এ বিদ্যাগ্রহনকারী সকল মানিকগঞ্জের মানিকদের একই সুত্রে গেঁথে রাখার জন্য ২০১৮ সাল থেকে যাত্রা শুরু হয় আমাদের মানিকগঞ্জ স্টুডেন্ট এসোসিয়েশনের।

এই এসোসিয়েশন এর উদ্যোগে গত ১২/১১/২০২২ তারিখে মানিকগঞ্জের সকল প্রাক্তন ও বর্তমান ড্যাফোডিলিয়ানদের নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় এক মিলনমেলার। এই অনুষ্ঠানে সবার স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ ও নিজের জন্মস্থানের প্রতি এই স্নেহপরশ যুক্ত ভালোবাসার জন্যই হয়তো ড্যাফোডিল এর বুকে জেগে উঠে এক টুকরো মানিকগঞ্জ।

অনুষ্ঠান শুরু হয় সকাল ৯টা থেকে পূর্বনির্ধারিত স্থান বনমায়াতে। মানিকগঞ্জের ড্যাফোডিলিয়ান মানিকেরা জড় হতে থাকে বনমায়াতে। বরণ করে নেওয়া হয় অনুষ্ঠানে অংশগ্রহনকারী মানিকগঞ্জের সকল মানিক দের। কেক কেটে অনুষ্ঠানের শুভারম্ভ ঘোষণা করা হয়। এরপর অনুষ্ঠিত হয় খুবই সুন্দর একটা খেলা “চলো ভবিষ্যত দেখি”।
এর পর পর ই আমাদের বড় ভাইয়ারা আমাদের ও আমাদের মানিকগঞ্জ স্টুডেন্ট এসোসিয়েশনের প্রতি দিকনির্দেশনা মুলক বেশ কিছু কথা বলেন। এখানে তারা আমাদের সুন্দর মত বুঝিয়ে বলেন ড্যাফোডিলে পড়াকালীন তাদের জীবনের সমস্ত অভিজ্ঞতা। জীবনে সফল ও ভবিষ্যত সুন্দর করতে হলে এই সময়টাতে আমাদের কি করা উচিৎ এবং কি করা উচিৎ নয়। এছাড়াও আমাদের এই এসোসিয়েশন এর যে গুরুত্ব কতটা তাও তারা খুবই সুন্দর করে উপস্থাপন করেন।
এরপর শুরু হয় ফুটবল খেলা। খেলাটি ছিলো এমন যেখানে খুবই ছোট করে দেওয়া হয় গোল পোস্ট এবং বেশ খানিকটা দূর থেকে বল লাথি দিয়ে গোল করতে হবে। আমাদের সকলের স্বতস্ফূর্ত অংশগ্রহনে টান টান উত্তেজনায় অনেক জমে উঠে খেলাটি। গোল করতে পারলে সবার হুল্লোড়ে মুখরিত হয়ে উঠে পুরো বনমায়া। চোখ বন্ধের সাথেই স্মৃতির পাতায় ঝলক দিয়ে উঠছে সেদিনের সেই স্মৃতিগুলো।
এরইমধ্যে সময় হয়ে যায় দুপুরের খাবারের। পরিবেশন করা হয় দুপুরের খাবার। আমারা সকল মানিকগঞ্জের ভাই বোনেরা বনমায়াতে সুন্দর কোমল সবুজ ঘাসের উপর বসে একসাথে গ্রহণ করি দুপুরের খাবার। কতটাই না সুন্দর ছিলো ওইসময় টুকু। ড্যাফোডিল এর বুকে মানিকগঞ্জ এর মানিকেরা একসাথে বসে দুপুরের খাবার… সময়টাকে স্মরণীয় করে রেখে দিতে তোলা হয় বেশকিছু ছবিও।
এরপর ই শুরু হয় সংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। বনমায়ার সুন্দর সবুজ প্রকৃতি মাঝে বসে উপভোগ করি বেশ কয়েকটি গান। বিজন দার গান ও গিটারের সুরে মুখরিত হয় উঠে পুরো বনমায়া।
এর পর পর ই শুরু হয় বালিশ খেলা। এই খেলাটিও জমে উঠে বেশ। সবার স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ ও আমোদ উত্তেজনাপূর্নতার মধ্য দিয়ে শেষ হয় খেলাটি।

এরই মধ্যে দিয়ে আমাদের অনুষ্ঠানটি একদম শেষ দিকে চলে আসে। বিভিন্ন খেলায় বিজয়ীদের হাতে তুলে দেওয়া হয় পুরস্কার। বর্তমান কমিটির সভাপতি (মো ইমরান হোসাইন)ভাই ও সাধারণ সম্পাদক (সিফাত সাঈকী) ভাই হাতে তুলে দেওয়া হয় শুভেচ্ছা স্মারক ক্রেস্ট।সুন্দর এই মুহূর্টাকে স্মরণীয় করে রাখতে এবং সকল ড্যাফোডিলিয়ান মানিকগঞ্জের মানিকদের একই ফ্রেমে বেধে রাখতে তোলা হয় বেশ কিছু ছবি। এরপর ভাইয়ারা আবারো আমাদের উদ্দেশ্য ও এসোসিয়েশন এর উদ্দেশ্যে কিছু কথা বলেন এবং আমাদের এসোসিয়েশন এর আগের কমেটির কার্যক্রম এর সমাপ্তি ঘোষণা করে সমাপ্তি ঘোষণা করেন আমাদের পুনর্মিলন অনুষ্ঠানের।

ভাতৃত্ত্বের বন্ধন হয়তো এইটাই নিজ এলাকার নিজ ক্যাম্পাসের ছোট ভাই বোনেদের ডাকে সাড়া দিয়ে হাজারো কাজের ফাকে একটু সময় খুজে নিয়ে ছুটে এসেছেন আমাদের ভাইয়ারা। আনন্দ উৎসবে মেতে উঠেছেন আমাদের সাথে। সবার সাথে কাটানো এই স্মৃতিগুলো না সত্যিই অসম্ভব রকমের সুন্দর। ক্ষণিকের এই স্মৃতিগুলো স্মৃতির পাতায় লিখা হয়ে থাকবে যা কোনোদিন ভোলার নয়। কিন্তু ক্ষনিকের এই স্মৃতিকে আমাদের এসোসিয়েশন এর মধ্য দিয়ে বিস্তার করা সম্ভব। যেখানে সবাই আমরা মানিকগঞ্জের মানিকেরা এখসাথে সবার আপদে বিপদে,আনন্দে বেদনায় এক সুত্রে গাথা হয়ে থাকব। ড্যাফোডিল এর বুকে ফুটে উঠবে এক টুকরো মানিকগঞ্জের। আমাদের মনে হবে আমরা আমাদের জন্মস্থান মানিকগঞ্জ এই আছি।

প্রাক্তন চলে রকমই যাবে বর্তমান থাকবে নবীন আসবে এইভাবেই চলবে। শুধু লক্ষ রাখতে হবে আমাদের মধ্যে ভাতৃত্ত্বের,ভালোবাসার এই বন্ধন যেন আজীবন অটুট থাকে। এটাই আমাদের প্রত্যাশা।

শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরও খবর
© All rights reserved © 2014 Amar News
Site Customized By Hasan Chowdhury