1. hasanchy52@gmail.com : admin :
  2. amarnews16@gmail.com : Akram Hossain : Akram Hossain
বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০১:৫৬ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
এস.এস.সি পরীক্ষায় গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়েছেন ফয়সাল মাহমুদ এস.এস.সি পরীক্ষায় গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়েছেন সামিউল হাসান সিফাত এস. এস. সি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়েছে মানিকগঞ্জ পৌর আওয়ামীলীগ নেতা ছেলে আলামিন মানিকগঞ্জ যুবদলের যুগ্ন আহবায়ক মাসুদ পারভেজ আটক সাউথইস্ট ব্যাংক এজেন্ট ব্যাংকিং জয়মন্টপ শাখার প্রথম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে আলোচনা সভা রোহিঙ্গাদের জন্য সাড়ে ৭ মিলিয়ন ডলার দেবে নেদারল্যান্ডস এসএসসি পরীক্ষায় মানিকগঞ্জের শামস আলিয়া ইস্মি জিপিএ-৫ পেয়েছে মুন্নু ইন্টারন্যাশনাল স্কুল অ্যান্ড কলেজে পাসের হার শতভাগ, শিক্ষার্থীদের বাঁধভাঙা উল্লাস ১০ ডি‌সেম্বর স্থান ইস্যুতে অনড় বিএনপি ও সরকার আমরা যুদ্ধ ও সংঘাতের ক্ষতি বুঝি, প্লিজ যুদ্ধ থামান: প্রধানমন্ত্রী

মেয়র হিসেবে নয় সেবক হিসেবে কাজ করতে চাই পিন্টু

  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ২০ নভেম্বর, ২০২২
  • ২৩৪ বার দেখা হয়েছে

রাজশাহী প্রতিনিধিঃ

আজ মেয়র পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছে শাহিনুর রহমান পিন্টু। মেয়র হিসেবে নয় সেবক হিসেবে কাজ করতে চাই পিন্টু।

তফসিল অনুযায়ী আগামী ২৯ শে ডিসেম্বর ২০২২ ইং বাঘা পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ফলে রাজশাহীর বাঘা উপজেলার রাজনৈতিক অঙ্গনে পৌরসভা নির্বাচন নিয়ে তুমুল তোরজোর চলছে। এ উপজেলায় হাট-বাজার মাঠে ঘাটে ও চায়ের দোকানে নির্বাচনী আলোচনা এখন সবার মুখে মুখে।

সে লক্ষ্যে বাঘা পৌর এলাকায় ব্যাপক প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন প্যানেল মেয়র শাহিনুর রহমান পিন্টু। তাকে নিয়ে প্রচারনায় সরব হয়ে উঠেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক পেইজ গুলিও। এসব প্রচারণায় ইতিবাচক সাড়া মেলেছে সর্বমহলে। তাই তরুণ এই নেতাকে নিয়ে বাঘা পৌরসভার সাধারণ ভোটারদের মধ্যে চলছে ব্যাপক আলোচনা।

জানা যায়, শাহিনুর রহমান পিন্টুর পিতা মোঃ মসলেম উদ্দিন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একজন প্রবীন একনিষ্ঠ কর্মী । ভিটা মাটি বিক্রি করে দলের দুর্দিনে বিভিন্ন প্রোগ্রামে অর্থ যোগান দিতেন এই মুজিব ভক্ত মসলেম উদ্দিন। ১৯৯৬ সালে বি.এন.পির প্রহশনের নির্বাচনের সময় বি.এন.পির সন্ত্রসী বাহিনী তাদের বসত বাড়িটি পেট্রোলের আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয় । পিন্টুর বড় ভাই মোঃ সেরাজুল ইসলাম আলম ১৯৯২ইং সালে বাঘা শাহদৌলা ডিগ্রি কলেজের ছাত্র সংসদ নির্বাচনে ছাত্রলীগ প্যানেলের নির্বাচিত সাহিত্য সম্পাদক ছিলেন এবং বর্তমানে বাঘা উপজেলা তাঁতীলীগের আহবায়ক হিসেবে ০৭ বছর যাবৎ দায়িত্ব পালন করে আসছেন। ছোট ভাই তুহিন একজন সাবেক ছাত্রনেতা এবং বর্তমানে বাঘা পৌর যুবলীগ নেতা। ছোট ভাই সুজন ও ছেলে তূর্য বাঘা উপজেলা ছাত্রলীগের রাজনিতির সাথে যুক্ত । পিন্টুর পরিবারের সবাই বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে যুক্ত।

বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে এবং পিতা ও বড় ভাইয়ের রাজনৈতিক কর্মকান্ড দেখে স্কুল জীবন থেকেই ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত হন শাহিনুর রহমান পিন্টু। লিখাপড়ার পাশাপাশি একেবারে তৃণমূল পর্যায় থেকে রাজনৈতিক ক্যারিয়ার গড়ে তুলেন তিনি। ১৯৯০ ইং সালে দুড়দুড়িয়া ৫নং ওয়ার্ড (পিতার কর্মস্থল জনিত কারণে লালপুর উপজেলার দুড়দাড়িয়া ইউনিয়নে বসবাস করেছেন কয়েক বছর ) ছাত্রলীগের সভাপতি নির্বাচিত হন তিনি । ১৯৯৬ ইং সালে তৎকালীন বাঘা উপজেলার বাজুবাঘা ইউনিয়নের (বর্তমানে বাঘা পৌরসভা) ৫নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি নির্বাচিত হন। বর্তমানে বাঘা উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক হিসেবে ২০১৪ইং সাল থেকে দায়িত্ব পালন করে আসছেন এবং বাঘা পৌর আওয়ামীলীগের একজন সদস্যও তিনি । সম্প্রতি গত ২১শে মার্চ বাঘা উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন পরবর্তি পূর্নাঙ্গ প্রস্তাবিত কমিটির ১নং সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বাঘা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ শাহরিয়ার আলম, এমপি ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ আশরাফুল ইসলাম (বাবুল) এর স্বাক্ষরিত জেলা আওয়ামীলীগ কর্তৃক অনুমোদনের অপেক্ষায় (০৫/১১/২০২২ ইং পর্যন্ত জেলা সিদ্ধান্ত হয়নি)। এছাড়াও ২০১৭ সালে বাঘা পৌরসভা নির্বাচনে ৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর এবং পরবর্তীতে প্যানেল মেয়র-১ নির্বাচিত হয়ে সততা ন্যায় ও নিষ্ঠার সাথে বাঘা পৌরবাসীদের কল্যাণে কাজ করে আসছেন তিনি। বর্তমানে বাঘা উপজেলা দলিল লেখক সমিতির সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালনও করছেন তিনি।

এদিকে সম্প্রতি নির্বাচন হওয়া পার্শ্ববর্তি চারঘাট উপজেলার চারঘাট পৌরসভা নির্বাচনে, বাঘা উপজেলার মনিগ্রাম, গড়গড়ি, বাজুবাঘা,বাউসা, আড়ানী, চকরাজাপুর ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে নৌকা প্রতিকের প্রার্থীদের পক্ষে সার্বিক ও আর্থিক সহযোগীতা করেছেন তরুণ এই রাজনিতি বিদ । রাজনৈতিক জীবনে সে এবং তার পরিবার কখনই নৌকা প্রতিকের বা আওয়ামী লীগের যে কোন সিদ্ধান্তের বিরোধীতা করে নাই। তার নামে বিভিন্ন সময়ে প্রায় দশটির অধিক মিথ্যা রাজনৈতিক মামলা ছিল, যাহা প্রায় সবই নিষ্পত্তিকৃত।

একজন জনপ্রতিনিধি হিসেবে সামাজিক ও ধর্মীয় কার্যক্রমেও রয়েছে শাহিনুর রহমান পিন্টুর ব্যাপক অংশ গ্রহণ। মসজিদ, মন্দির নির্মানে আর্থিক সহায়তা, প্রতি বছর ঈদ উপহার হিসেবে সুবিধা বঞ্চিত অসহায় দরিদ্র মানুষদের মাঝে শাড়ি, লুঙ্গি সহ নগদ অর্থ প্রায় ১০ লক্ষ টাকা, পূজা উপলক্ষে সনাতন ধর্মালম্বীদের মাঝে নগদ অর্থ ও শাড়ি, শীতার্থ মানুষের মাঝে প্রায় ১০ হাজার কম্বল, করোনা কালীন সময়ে ৫০ টন চাউল, ১০০টন সবজি এবং প্রায় নগদ ২০ লক্ষ টাকা, মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার, পৌর এলাকার বিভিন্ন স্থানে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা, বাঘা পৌরসভার বিভিন্ন দরিদ্র পরিবারে প্রায় ২০০০টি টিউবয়েল, বিভিন্ন দরিদ্রদের মাঝে চিকিৎসা ব্যয় বাবদ নগদ অর্থ সহায়তা , দরিদ্র পরিবারের কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষে অটোভ্যান, মুদি দোকান এবং চায়ের স্টল করে দেওয়া, দরিদ্র পরিবারের সন্তানদের লেখাপড়া ব্যয় বাবদ নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান, ব্যাক্তিগত তহবিল হইতে বিভিন্ন রাস্তা নির্মান ও সংস্কার, দরিদ্র পরিবারের ছেলে মেয়েদের বিবাহ কার্যক্রমে আর্থিক সহায়তা, খেলাধুলার সামগ্রী বাবদ প্রতি বছর বিভিন্ন ক্লাব ও সামাজিক সংগঠন গুলোকে প্রায় ৩ লক্ষ টাকা নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান করেন শাহিনুর রহমান পিন্টু ।

এ ব্যাপারে শাহিনুর রহমান পিন্টু বলেন, স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ বুকে ধারণ করেই ছাত্রজীবন থেকে রাজনীতি করে আসছি। দলের সুসময়-দুঃসময়ে পাশে থেকেছি। রাজপথের পাশাপাশি তৃণমূল নেতাকর্মীদের নিয়ে সাধারণ মানুষের পাশে থাকার চেষ্টা করেছি।

তিনি আরো বলেন, হাজার বছরের ইতিহাস ও স্মৃতি বিজরিত বাঘা উপজেলা। যার প্রান কেন্দ্র অবস্থিত বাঘা পৌরসভা। প্রায় ৫০ হাজার জনগনকে সঙ্গে নিয়ে আমি বাঘা পৌরসভাকে
বাংলাদেশের একটি মডেল পৌরসভা বিনির্মানে কাজ করে চলেছি এবং কাজ করে যেতে চাই।
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে এবং গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রেখে তার হাতকে শক্তিশালী করতে আমি বদ্ধ পরিকর। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ দক্ষিন এশিয়ার প্রাচীন একটি রাজনৈতিক দল। এদলের একজন ক্ষুদ্র কর্মী হিসে

শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরও খবর
© All rights reserved © 2014 Amar News
Site Customized By Hasan Chowdhury