1. hasanchy52@gmail.com : admin :
  2. amarnews16@gmail.com : Akram Hossain : Akram Hossain
শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ০৬:১৫ পূর্বাহ্ন

জাতিসংঘ উন্নয়ন সহায়তা তহবিল পেলেন মানিকগঞ্জের লাবনী আক্তার

  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ১৯ জুন, ২০২৩
  • ৩৩৫ বার দেখা হয়েছে
স্টাফ রিপোর্টার, নুসরাত জাহান তনিমা:
জাতিসংঘ উন্নয়ন সহায়তা তহবিল (ইউএনসিডিএফ) বাংলাদেশের পাঁচ জেলার নারী জনগোষ্ঠির অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য কর্মরত আইসিটি সেক্টর এবং এসএমই উদ্যোক্তাদের নিকট হতে জেন্ডার রেসপনসিভ ব্যবসায়িক বিনিয়োগ প্রস্তাবনা আহ্বান করেছিল। এই প্রস্তবনার প্রেক্ষিতে মানিকগঞ্জের ১৪ জন নারী উদ্যোক্তা আবেদন করেছিলেন। কয়েকস্তরে যাচাই বাছাই শেষে মানিকগঞ্জের ‘ডিফারেণ্ট বিউটি’ বুটিক প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা লাবনী আক্তারকে চুড়ান্ত পর্যায়ে মনোনীত করা হয়। তাঁর কাজের স্বীকৃতি এবং ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান সম্প্রসারণের লক্ষে জাতিসংঘের এই প্রতিষ্ঠান থেকে তিনি পেলেন অফেরতযোগ্য ৫ লাখ ৮০ হাজার টাকা।
জানা যায়, লাবনী আক্তার মানিকগঞ্জ সদরের বান্দুটিয়া এলাকায় লেবু মিয়ার মেয়ে। তিনি মানিকগঞ্জের এস কে গার্লস হাই স্কুল থেকে মাধ্যমিক, সরকারি দেবেন্দ্র কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে মাস্টার্স এবং প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ফিন্যান্সে এম.বি.এ করেছেন । ২০২২ সালে তিনি মানিকগঞ্জ সদরের শ্রেষ্ঠ জয়িতা নির্বাচিত হয়েছিলেন।
লাবনী আক্তার প্রতিবেদককে জানান, অনেক প্রতিকূল অবস্থা পেরিয়ে আজ এখানে এসে দাঁড়িয়েছি। মাত্র দুইজন নারী শ্রমিক এবং ৭শ টাকা পুঁজি নিয়ে ব্যবসা শুরু করেছিলাম। আমার কাজের গুণগতমান, কঠোর পরিশ্রম এবং দৃঢ় মনোবলের কারণে আমি খুব অল্প সময়ে দেশে একটি আলাদা পরিচিতি লাভ করেছি। এখন আমার বুটিক কারখানায় শ্রমিকের সংখ্যা ১০০ জন। জাতিসংঘের এ অনুদানে আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান হবে আরো সম্প্রসারিত এবং বৃদ্ধি পাবে মানসিক মনোবল। এই দুর্লভ প্রাপ্তিতে আমি বিসিকের উপপরিচালক এবং যাঁরা সার্বিক সহায়তা করেছেন তাঁদের প্রতি কৃতজ্ঞ। সততা, নিষ্ঠা আর একাগ্রতার সাথে কাজ করে জেলার অবহেলিত নারীদের স্বাবলম্বী করে তোলাই আমার একমাত্র লক্ষ্য।
মানিকগঞ্জ জেলা বিসিকের উপপরিচালক মাহবুবুল ইসলাম রোকন  জানান, ইউএনসিডিএফ হচ্ছে জাতিসংঘের মূলধন বিনিয়োগ বিষয়ক সংস্থা। যা বিশ্বের ৪৭টি অনুন্নত দেশে কাজ করে থাকে। দরিদ্র জনগোষ্ঠির জন্য সরকারি এবং বেসরকারি পুঁজি বিনিয়োগ উন্মুক্ত করা এ সংস্থার প্রধান কাজ। উইমেন্স এমপাওয়ারমেন্ট ফর ইনক্লুসিভ গ্রোথ (উইং) কর্মসূচিটি হচ্ছে ইউএনসিডিএফ, ইউএনডিপি, ইউএন উইমেন এবং নেদারল্যান্ডস দূতাবাসের একটি যৌথ প্রকল্প। যা পরবর্তী আইএলডি কর্মসূচির শিখনসমূহের উপর ভিত্তি করে প্রণীত। এই কর্মসূচির সামগ্রিক লক্ষ্য হচ্ছে উপার্জন ও অর্থনৈতিক নিরাপত্তার ক্ষেত্রে নারী জনগোষ্ঠির টেকসই উন্নতি সাধন। নারীর অর্থনৈতিক ক্ষমতায়নে সহায়ক নীতিমালা বাস্তবায়ন ও প্রয়োগ জোরদারকরণ, স্থানীয় অর্থনৈতিক কর্মকান্ডে নারীর অংশগ্রহণ বৃদ্ধি এবং নারী পরিচালিত ব্যবসায়িক উদ্যোগসমূহের বিনিয়োগের পরিসর বৃদ্ধির জন্য অধিক হারে স্থানীয় মূলধন প্রাপ্তি নিশ্চিত করার লক্ষ্যে উইং কর্মসূচী কাজ করে আসছে। মানিকগঞ্জের নারী উদ্যোক্তা লাবনী আক্তার এই তহবিল প্রাপ্তি তাঁকে অভিনন্দন জানাচ্ছি এবং আশা করছি বাংলাদেশের নারীরা ভবিষ্যতে আরও ভাল কিছু করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করবেন

শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরও খবর
© All rights reserved © 2014 Amar News
Site Customized By Hasan Chowdhury