1. hasanchy52@gmail.com : admin :
  2. amarnews16@gmail.com : Akram Hossain : Akram Hossain
বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ০৪:৫৭ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
মানিকগঞ্জে আন্দোলনরত সাধারন শিক্ষার্থীদের উপর হামলা বিএনপির সাবেক মহাসচিব খন্দকার দেলোয়ার হোসেনের ছেলে ডাবলুর মৃত্যুতে জেলা বিএনপির শোক প্রকাশ মানিকগঞ্জের গড়পাড়া ইমাম বাড়ির তাজিয়া মিছিল বের হওয়ার নানা প্রস্তুতি ও ইতিহাস প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে সেরা মেধাবী পুরুষ্কার গ্রহন করেন মানিকগঞ্জের জান্নাতুল মানিকগঞ্জের গড়পাড়ায় ব্রীজ নির্মানের দুই বছরের মধ্যেই ডেবে চরম ভোগান্তিতে হাজারোও মানুষ মানিকগঞ্জ গড়পাড়া ইমামবাড়ির তাজিয়া মিছিলের প্রস্ততি ও  ইতিহাস কোটা  আন্দোলনের সমর্থনে মানিকগঞ্জে মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ সিংগাইরে ঋণ গ্রহীতার কাছে ব্যাংক ম্যানেজারের ঘুষ দাবীর অভিযোগ মানিকগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় সাবেক ছাত্রলীগ নেতার মৃত্যু সিংগাইরে আ.লীগ অফিস ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাংচুরের ঘটনায় ৫ দিনেও গ্রেফতার নেই 

মানিকগঞ্জ সিংগাইরে দু’পরিবারকে চেতনা নাশক খাইয়ে লুটে নিল ২ লাখ টাকা

  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৫৪২ বার দেখা হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার:

মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার সায়েস্তা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ইঞ্জি. মোজাম্মেল হোসেন খানের বাড়িতে চেতনা নাশক খাইয়ে তার ছোট বোনের মৃত্যুর রেশ না কাটতেই আবারো খাবারের সাথে চেতনা নাশক ওষুধ খাওয়ানোর ঘটনা ঘটেছে। গত সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাতে জামির্ত্তা ইউনিয়নে আলী নগর গ্রামে দু’ পরিবারের ১৩ সদস্যকে চেতনা নাশক ওষুধ খাওয়ানো হয়েছে। এতে এক পরিবার থেকেই লুটে নেয়া হয়েছে প্রায় দু’ লাখ টাকা।

অজ্ঞান হওয়া পরিবার সূত্রে জানা গেছে, ওইদিন দুপুরের খাবার খেয়ে আলী নগর গ্রামের সামছুদ্দিন ডিলার (৭৮) ও তার প্রতিবেশি ছকিল উদ্দিন বাড়ির সদস্যরা অজ্ঞান হয়ে পড়েন। রাতে সামছুদ্দিন ডিলারের বাড়ির কলাপসিবল গেটের তালা ভেঁঙ্গে সুকেচ থেকে নগদ ৮৫ ও আলমারি ভেঁঙ্গে ১ লাখ ৪ হাজার টাকা দুবৃর্ত্তরা লুটে নেয়। অপরদিকে ছকিল উদ্দিনের পরিবারের অজ্ঞান হওয়ার বিষয়টি তার ভাই আব্দুল করিম টের পেয়ে রাতে পাহারা দিয়ে মালামাল লুট হওয়া থেকে রেহাই পায়।

জানা গেছে, সামুছুদ্দিন পরিবারের অজ্ঞান হওয়া সদস্যরা হচ্ছেন- গৃহকর্তা ও তার স্ত্রী রাজিয়া খাতুন (৭০), পুত্র লতিফ (৪৫), পুত্রবধূ রিনা আক্তার (৩৮), নাতনী শামিমা (১৬), আয়েশা (১৪) ও নাতি ইব্রাহিম (১১)। এদের মধ্যে রাজিয়া খাতুনের অবস্থা আশংকাজনক। বাকিরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ্য হয়েছেন। ছকিলউদ্দিনের পরিবারের সদস্যরা হচ্ছেন- গৃহকর্তা ও তার স্ত্রী হেনা বেগম (৫৫), পুত্র দেলোয়ার হোসেন (৪০), পুত্রবধূ ঝর্ণা আক্তার (৩৫), নাতি স্বপন (১৭) ও নাতনী যুথি (১২)। তারাও প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ্য হয়েছেন।

অজ্ঞান হওয়া পরিবারদ্বয়ের সদস্যদের দাবি, হলুদের গুড়ার মধ্যে সাদা পাউডার জাতীয় কেমিক্যাল দেখা গেছে। এ ব্যাপারে শান্তিপুর বাঘুলি তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক মোঃ লুৎফর রহমান বলেন, এ ধরনের অভিযোগ নিয়ে কেউ আসেনি। আপনার মুখেই প্রথম শুনলাম।

শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরও খবর
© All rights reserved © 2014 Amar News
Site Customized By Hasan Chowdhury